শিরোনাম:
বোয়ালখালীতে নবনিযুক্ত ১৪ জন স্বাস্থ্য সহকারীদের বরণ অনুষ্ঠান সম্পুন্ন গোপালগঞ্জে টুঙ্গিপাড়ায় চাঁদা আদায় করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক -০১ চট্টগ্রামে সীমানা গুলোই সস্ত্রাসীদের নীরব আস্তানা : প্রশাসন নিরব চট্টগ্রামে এক ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত চাঁদার দাবিতে হাবিববাহিনীর হামলায় আহত ১, এলাকাবাসীর ঝাড়ু মিছিল সদ্য যোগদানকৃত রেঞ্জ ডিআইজির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ কাশিয়ানির রাহুথড় উদয়ন বিদ্যাপিঠ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ অপসারণ কাশিয়ানীতে নকল পণ্যের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান বোয়ালখালীতে গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে আহত ৫

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের থাকতে হচ্ছে কারাগারে!

লুৎফার সিকদার - গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০২৪
2.6kভিজিটর

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান ভূঁইয়া লুটুলকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। তবে জামিন কেন প্রদান করা হবে না সেই মর্মে ১০ দিনের রুল দিয়েছেন।

৯ জুলাই গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান ভূঁইয়া লুটুলকে জামিন দেননি হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী এবাদত হোসেনের দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এদিন আসামিপক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী নুরুল ইসলাম সুজন ও রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।

এজাহার থেকে জানা যায়, গত ১৪ মে রাতে পূর্ব পরিকল্পনা মতে বিজয়ী উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান ভূঁইয়া লুটুলের নেতৃত্ব ও নির্দেশে পরাজিত প্রার্থী লিয়াকত আলীর সমর্থক ওসিকুর ভূঁইয়াকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ মামলায় ১৯ মে হাইকোর্ট থেকে ৬ সপ্তাহের আগাম নেন তিনি। পরে ৬ সপ্তাহ পরে বিচারিক আদালতে গত ৩০ জুন আত্মসমর্পণ করলে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

আজ হাইকোর্টে জামিন শুনানিতে অপরাধের গুরুত্ব বিবেচনায় জামিন দেননি তাকে। তবে জামিন কেন প্রদান করা হবে না, সেই মর্মে ১০ দিনের রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট।

গত ৮মে প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনে কামরুজ্জামান ভূঁইয়া লুটুল গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন

পরে ১৪ মে রাত সাড়ে ৭টার দিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া বাজারে গুলি ও সহিংসতার ঘটনায় ওসিকুর ভূঁইয়াসহ (২৭) ছয় জন আহত হন। হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক ওসিকুরকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই গ্রামের জলিল ভূঁইয়ার ছেলে ওসিকুর ভূঁইয়া পেশায় চা-বিক্রেতা ছিলেন। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী বি এম লিয়াকত আলীর সমর্থক ছিলেন।

এ ঘটনায় ১৬ মে রাতে ওসিকুর ভূঁইয়ার বোন পারুল বেগম বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় নির্বাচিত চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান ভূঁইয়া লুটুলকে প্রধান আসামি করে ২৩ জনের নাম উল্লেখ এবং ৪০/৫০ অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২২, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x