শিরোনাম:
চট্টগ্রামে এক গৃহবধূর ও এক বৃদ্ধার আত্মহত্যা বোয়ালমারীতে অবৈধভাবে সরকারি জমিতে পাকা স্থাপনা বানানোর অভিযোগ আলফাডাঙ্গায় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে বিকৃতি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন সুনামগঞ্জে সুরমা ইউপি চেয়ারম্যান আমির হোসেন রেজা বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে সংবাদ সম্মেলনে করেছেন ১১জন ইউপি সদস্যরা বোয়ালমারীতে কোটা আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন পিকনিকের ট্রলারে হামলা, লুটপাট। প্রাণ বাচাতে নদীতে লাফ, মরদেহ উদ্ধার।। বরিশালে বাপ ছেলের সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি সার্ভে ও রেজিস্ট্রেশন করতে আসা ছোট নৌযান মালিকরা গোপালগঞ্জে বশেমুরবিপ্রবিতে নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মিছিল! গোপালগঞ্জে হেলমেট বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার নির্দেশ- জেলা প্রশাসক পঞ্চগড়ে ২০ লাখ টাকার অবৈধ চা জব্দ করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

বিএনপির কর্মী সম্মেলনে পুলিশি বাধা, ইটপাটকেল নিক্ষেপ।

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি: এস এম রুবেল
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ২৪ জুন, ২০২৩
17.4kভিজিটর

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে বিএনপির কর্মী সম্মেলনে পুলিশ এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্যে করে ইট পাটকেল ছুড়লে পাল্টা পুলিশ লাঠিচার্জ করে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে বোয়ালমারী পৌর সদরের পাঞ্জারী একাডেমির চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে দীর্ঘদিন বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক সাংসদ শাহ্ মো. আবু জাফর গ্রুপ এবং সাবেক সাংসদ কেন্দ্রীয় কৃষকদলের সহসভাপতি খন্দকার নাসিরুল ইসলাম গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপি চেয়ারপারসন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবি আদায় এবং স্থানীয় ভাবে নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত করতে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলা-পৌর বিএনপির উদ্যোগে নতুন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে কর্মী সম্মেলনের আয়োজন করে দলটি। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে কেন্দ্রীয়, জেলা ও স্থানীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে কর্মী সম্মেলন শুরু হয়।

তবে সমাবেশস্থলে দুই গ্রুপের উত্তেজনা পরিবেশ সৃষ্টি হলে পুলিশ সভাস্থলে পৌঁছে সভাটি সংক্ষিপ্ত আকারে শেষ করে সভাটি বন্ধ করার জন্য নির্দেশ দেন। এতে আগত বিএনপির নেতাকর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলে পুলিশ ২০ মিনিট সময় বেধে দেয়। এ নিয়ে পুলিশের সাথে তর্কে বিতর্কে নেতাকর্মীরা জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সভার বাইরে থাকা দলটির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা সরকার বিরোধী শ্লোগন দিতে থাকলে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এতে নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এসময় পুলিশকে লক্ষ্যে করে ইট পাটকেল ছুড়লে কয়েকজন পুলিশ সামান্য আহত হয়। পুলিশের সাথে নেতাকর্মীদের ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করলে বোয়ালমারী সাবেক পৌর মেয়র আব্দুস শুকুর শেখ, যুবদল নেতা ইমরান হোসেনসহ বেশ কয়েজন নেতাকর্মীর আহত হয়। বিএনপির আহত নেতাকর্মীরা স্থানীয় একটি ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে বলে সাবেক সাংসদ খন্দকার নাসিরুল ইসলাম জানিয়েছেন।

কর্মী সম্মেলনে উপজেলা বিএনপির সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) খন্দকার রফিকুল ইসলাম কামাল মিয়ার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সিরাজুল ইসলাম সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ফরিদপুর বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার মাশুকুর রহমান (মাশুক), কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক সাংসদ শাহ্ মোহাম্মদ আবু জাফর, ফরিদপুর জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. সৈয়দ মোদাররেস

আলী ইছা, কেন্দ্রীয় কৃষকদলের সহসভাপতি ও ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক সাংসদ খন্দকার নাসিরুল ইসলাম, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ফরিদপুর বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিমুজ্জামান সেলিম, ফরিদপুর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব একেএম কিবরিয়া স্বপন, পৌর বিএনপির সভাপতি শেখ আফসার উদ্দিন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক সঞ্জায় সাহা প্রমূখ।

কর্মী সম্মেলনে উপস্থিত থাকা ও কেন্দ্রীয় কৃষকদলের সহ-সভাপতি, সাবেক সাংসদ খন্দকার নাসিরুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন উপজেলা-পৌর কমিটি পুরাতনদের নিয়ে কাজ চালিয়ে নেওয়া হচ্ছে। সে জন্য কাদেরকে নতুন নেতৃত্বে আনলে সংগঠন শক্তিশালী হতে পারে, এ বিষয় নিয়েই কর্মী সমাবেশের আয়োজন করা হয়। কিন্তু পুলিশ উদ্দ্যেশ্য প্রণোদিতভাবে একটি বিশেষ গোষ্ঠীর ইশারায় সমাবেশে বাধা দেয়।

আমাদের বিএনপির ভেতরে ঘাপটি মেরে থাকা বিএনপি ও আওয়ামী লীগের কিছু লোক, যারা চাই না বোয়ালমারীতে বিএনপি শক্তিশালী হোক তারা পুলিশকে দিয়ে এই ন্যাক্কার জনক হামলা চালিয়েছে। তবে পুলিশ বাধা দিলেও সল্প সময়ের ব্যবধানে আমরা সমাবেশ করতে পেরেছি। যে উদ্দেশ্য নিয়ে কর্মী সমাবেশ করা হয়েছে সে উদ্দেশ্য সফল হয়েছে বলে আমি মনে করি।

এ ব্যপারে সম্মেলনস্থলে উপস্থিত থাকা কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ্ মোহাম্মদ আবু জাফর বলেন, পুলিশের থেকে পূর্ব অনুমতি নেওয়ার পরেও আমাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে সরকারের লাঠিয়াল বাহিনী পুলিশ অতর্কিত হামলা চালিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে। পুলিশের লাঠিচার্জে আমাদের নেতাকর্মী আহত হয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দ জানাই।

এ ব্যাপারে বোয়ালমারী থানার ওসি মুহাম্মদ আব্দুল ওহাব বলেন, আজ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে উপজেলা সদরে দলীয় কার্যক্রম চলছে। সে কারনে বিএনপিকে অনুরোধ করা হয় আজকের দিনটা বাদ দিয়ে অন্য কোন দিনে সমাবেশ করার জন্য। তবে এ উপজেলায় বিএনপির মধ্যে এমনি শক্তিশালী দুটি গ্রুপ রয়েছে।

প্যান্ডেলের ভিতরে কিছু লোক রয়েছে আবার বাহিরেও অনেক লোক রয়েছে। আমাদের পুলিশ গিয়ে আজ (২৩জুন) সমাবেশ না করার অনুরোধ করে। তখন প্যান্ডেলের বাইরে কলেজের দিক থেকে খন্দকার নাসিরের লোকজন পুলিশের উপরে আক্রমন করে। তখন পুলিশও তাদেরকে ধাওয়া দেয়।“

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২২, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x