শিরোনাম:
চট্টগ্রামে এক গৃহবধূর ও এক বৃদ্ধার আত্মহত্যা বোয়ালমারীতে অবৈধভাবে সরকারি জমিতে পাকা স্থাপনা বানানোর অভিযোগ আলফাডাঙ্গায় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে বিকৃতি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন সুনামগঞ্জে সুরমা ইউপি চেয়ারম্যান আমির হোসেন রেজা বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে সংবাদ সম্মেলনে করেছেন ১১জন ইউপি সদস্যরা বোয়ালমারীতে কোটা আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন পিকনিকের ট্রলারে হামলা, লুটপাট। প্রাণ বাচাতে নদীতে লাফ, মরদেহ উদ্ধার।। বরিশালে বাপ ছেলের সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি সার্ভে ও রেজিস্ট্রেশন করতে আসা ছোট নৌযান মালিকরা গোপালগঞ্জে বশেমুরবিপ্রবিতে নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মিছিল! গোপালগঞ্জে হেলমেট বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার নির্দেশ- জেলা প্রশাসক পঞ্চগড়ে ২০ লাখ টাকার অবৈধ চা জব্দ করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রীসের নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপি এবং জাল ভোটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২২ মার্চ, ২০২৩
25.0kভিজিটর

বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রীসের ৭ম নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ উঠেছে। প্রকাশ্যে ভোট কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দেওয়ার ঘটনাও ঘঠেছে এথেন্স কেন্দ্রে। নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে উঠেছে স্বজনপ্রীতির অভিযোগও। প্রকাশে জাল ভোট, এক ব্যক্তি বারবার ভোট দিলেও অভিযোগ আমলে নেয়নি নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনের খামখেয়ালিপনায় ভোট থেকে বঞ্চিত হয়েছে হাজারো প্রবাসী বাংলাদেশি।


জানা যায়, দীর্ঘ ৬ বছর পর গ্রীস প্রবাসীদের বৃহত্তর সংগঠন বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিসের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ১৯ মার্চ। দুটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হয়। একটি ভোট কেন্দ্র গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে অপরটি নেয়া মানলোদা গ্রামে।


এথেন্স এর কেন্দ্রে নানা অব্যবস্থপনার মধ্যেও শুরুতে শান্তিপূর্ণভাবেই চলছিল ভোট গ্রহণ। ঘন্টাকানেক পরই শুরু হয়ে যায় জাল ভোটের মহোৎসব। এক পাসপোর্ট দিয়ে এক বার ভোট দেয়ার নিয়ম থাকলেও বাস্তবে দেখা গেছে একটি বিশেষ প্যানেল এর লোকজন এক পাসপোর্ট দিয়ে বারবার ভোট দিচ্ছেন। এমনকি ওই প্যানেলের লোকজন ভোটারদের সঙ্গে বুথে প্রবেশ করে জোরপূর্বক সীল দিতেও দেখা গেছে।

এমন কান্ড বারবার নির্বাচন কমিশনের নজরে আনা হলেও আমলে নেয়নি নির্বাচন কমিশন। অভিযোগ উঠেছে বিপুল অর্থের বিনিময়ে একটি প্যানেলকে জয়ী করতে খোদ নির্বাচন কমিশনই এমন অনিয়মের সুযোগ দিয়েছেন। দিন দুপুরে প্রকাশ্যে এমন অনিয়মের দেখেও না দেখার বান করেন দায়ীত্বশীলরা। পরে অপর একটি প্যানেলের লোকজন একাধীকবার ধাওয়া দিয়ে একাধীক জ্বাল ভোট প্রয়োগকারীকে আটক করেন। তবুও থামানো তাদের জ্বাল ভোটের গতি। এই কেন্দ্রে নানা নাটকীয়তায় শেষ হয় ভোট গ্রহন।


অপরদিকে গ্রীসের মানলোদা গ্রামে বসবাস করেন প্রায় ৫ হাজার বাংলাদেশি। সে কেন্দ্রে সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৬ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণের সুযোগ দেয়ার কথা থাকলেও শুরু হয় সকাল ১০ টা থেকে। কিন্তু ৬টার সময় বন্ধ করে দেয়া হয় ভোট গ্রহণ। এসয় হাজারেরও বেশি বাহিরে লাইনে ছিলেন। তারা ভোট দিতে পারেন নি। কারণ তারা দিনে কাজ করে বিকালে ভোট দিতে যান অনেকেই। কিন্তু তাদেরকে ভোটাধীকার প্রয়োগ থেকে বঞ্চিত করা হয়। এক পর্যায়ে নির্বাচন কমিশন কল দিয়ে পুলিশ নিয়ে তাদের উপর লাঠি চার্জ করায়।

অনেকেই আহত হয়। সেখানের ভোট ওই কেন্দ্রে না গননা করে নিয়ে যাওয়া হয় এথেন্সে। এথেন্সে এসে যে ফলাফল দেয়া হয় তা সত্য নয় বলে অভিযোগ করছেন মানলোদা গ্রামবাসী। তারা বলছেন ভোট কারচুপি করা হয়ে। একটি প্যানেলকে জয়ী করতে এমন কাহিনী করেছে নির্বাচন কমিশন। রাস্তায় শেখ আল আমীনের নামে দেয়া ভোটের ভ্যালট পেপার পেলে দিয়ে অন্য প্রার্থীকে জয়ী ঘোষনা করায় বর্জন করেছেন শেখ আল আমীন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২২, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x