শিরোনাম:
এলএলবি ফাইনাল পরীক্ষায় শহীদ অ্যাডভোকেট আবদুর রব সেরনিয়াবাত আইন মহাবিদ্যালয় এর সাফল্য “বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে গবেষণা ও উদ্ভাবনে উৎকর্ষতা অর্জন করতে হবে” ড, মোহাম্মদ আলমগীর। বোয়ালমারীতে এসডিসির পক্ষ থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্পবাসিদের ফ্রি স্বাস্থ্যসেবা প্রদান বোয়ালমারীতে চোরাই গরুর মাংশ বিক্রি অভিযুক্ত কসাই পলাতক প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনার ৪১তম স্ব‌দেশ প্রত‌্যাবর্তন দিব‌সের আ‌লোচনা সভা অনু‌ষ্ঠিত স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যার আসামিদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন। চাটমোহরে বিষপানে দুই স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা জামালপুরে মাস ব্যাপী কৃষি,শিল্প বাণিজ্য মেলা উদ্ধোধন নওগাঁ আমের রাজধানী সাপাহারে আবারও ঝড়, আবারও ক্ষয়ক্ষতি গঙ্গাচড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের সমাপনী অনুষ্ঠিত

মোংলায় ঠান্ডায় রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা, রোগীর স্বজনদের উপচে পড়া ভিড়

অতনু চৌধুরী (রাজু), বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২২

মোংলায় ঠান্ডায় রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা, রোগীর স্বজনদের উপচে পড়া ভিড়

হঠাৎ করে শৈত্যপ্রবাহের কারণে মোংলা ঠান্ডাজনিত রোগে বয়স্কদের চাইতে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা।

মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অন্যান্য সময়ের তুলনায় আউটডোর সাধারণ রোগীর চাপ অনেক বেশি।

এ বিষয়ে জামিলা খাতুনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, হঠাৎ করে শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ার কারণে তিনি আমাশয় ও শ্বাসকষ্ট রোগে ভুগছেন তাই ডাক্তারের চিকিৎসা নিতে এসেছেন।

তবে বয়স্কদের থেকে শিশু রোগীর সংখ্যা ছিল চোখে পড়ার মতো। মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শিশু কর্নারে গিয়ে দেখা দেখা যায় রোগীর স্বজনদের উপচে পড়া ভিড়।

এ বিষয়ে মোংলা উপজেলার মমতাজ বেগমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, হঠাৎ করে শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় আমার দুই বাচ্চা অসুস্থ হয়ে পড়েছে তারা আজ দু’দিন যাবত আমাশয়, সর্দি ও কাশি নিয়ে ভুগছেন।

মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শিশু কর্নারের চিকিৎসক প্রকাশ কুমার দাসের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অন্যান্য সময়ের তুলনায় বর্তমানে শিশু রোগীর চাপ অনেক বেশি সাধারণ সময় প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ জন রোগী আসলেও বর্তমান সময়ে ১০০ এর মতো হয়ে গেছে যার বেশির ভাগ শিশু ঠান্ডাজনি রোগ আমাশয়, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট, পাতলা পায়খানা ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত।

তিনি আরও বলেন, রোগীর চাপ বেশি থাকায় তাদের সেবা দিতে আমাদের অনেকটা কষ্ট হচ্ছে। তবে রোগীর স্বজনদের উচিত শীতের সময় বাচ্চাদের বাইরে বের না করা, গরম পানিতে গোসল করানো ও গরোম পানি পান করানো।

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২২, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x