মায়ের বিরুদ্ধে মেয়েকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ

আরিফ মাহামুদ, রংপুর
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১
মায়ের বিরুদ্ধে মেয়েকে গলা কেটে

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের হাজীপুর গয়দাপাড়া গ্রামের সেই মাদ্রাসাছাত্রী মাহবুবা খাতুন ওরফে মেরীকে (২৫) তাঁর মা নুরনাহার বেগম (৪৭) গলা কেটে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ থাকা ওই মেয়েটির চিকিৎসা করেও সুস্থ না হওয়ায় এবং মেয়েটিকে বিয়ে দিতে না পারায় তিনি মেয়েকে গলা কেটে হত্যা করেছেন বলে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

গত শনিবার ( ২৭ ফেব্রুয়ারি ) দুপুরে রংপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় নুরনাহার বেগম স্বেচ্ছায় ওই জবানবন্দি দিয়েছেন বলে আদালত ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

বদরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আরিফ আলী বলেন, নুরনাহার বেগম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে জানিয়েছেন, তাঁর দুই ছেলে ও দুই মেয়ে। বড় মেয়ে মাহবুবা বদরগঞ্জ ওয়ারেছিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ফাজিলে পড়াশোনা করতেন। দীর্ঘদিন ধরে মেয়েটি প্রচণ্ড মাথাব্যথাসহ মৃগীরোগে ভুগছিলেন। অনেক চিকিৎসার পরও সুস্থ না হওয়ায় এবং মেয়েটিকে বিয়ে দিতে না পারায় তিনি বিরক্ত ও ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। গতকাল শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে শয়নঘরে জোহরের নামাজরত অবস্থায় মৃগী রোগ উঠলে মাহবুবা চিৎকার দিয়ে জায়নামাজেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এ সুযোগে নুরনাহার বেগম ঘরে ঢুকে পাশে টেবিলের ওপরে থাকা ছুরি হাতে নিয়ে মাহবুবাকে গলা কেটে হত্যা করেন। পরে প্রতিবেশীদের কাছে প্রচার চালান অসুস্থ মাহবুবা নিজেরই গলা কেটে আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনার সময় মা-মেয়ে ছাড়া বাড়িতে আর কেউ ছিল না বলে তিনি আদালতকে জানিয়েছেন।

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25