শিরোনাম:
রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ আয়োজন করলো “পুলিশ কোভিড অক্সিজেন ব্যাংক প্রশিক্ষন” গ্যাস সিলিন্ডার লিক হয়ে ১০টি বসত ঘর ও দেড়কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি ঠাকুরগাঁও-রুহিয়া সড়কে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু চরফ্যাশনের শশীভূষণ থানায় জিডি করায় অতর্কিত হামলা, আহত-০৩ বালিয়াডাঙ্গীতে ঋণের চাপে ব্যবসায়ী আত্মহত্যা ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বাজেট ঘোষণা ডিমলায় এলাকাবাসীর নিজ উদ্যোগে রাস্তা নির্মাণের শুভ উদ্বোধন প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং গৃহহীনদের মাঝে ঘর বিতরণ রংপুরে ষষ্ঠ শ্রেনীর মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে বিএনপি নেতা গ্রেফতার রাজাপুরে উপজেলা প্রশাসনের সংবাদ সম্মেলন

বেগম জিয়ার বিদেশ যাওয়ার আবেদন বাতিল করছে সরকার

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ১০ মে, ২০২১
বেগম জিয়ার বিদেশ যাওয়ার আবেদন বাতিল করছে সরকার

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে ক্ষমা করে বিদেশে পাঠিয়ে দিচ্ছে অথচ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্য তাদের কোনো মানবতা–শিষ্টাচার কাজ করে না।

বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা করাতে পরিবারের আবেদন সরকারের নাকচ করার পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপির মহাসচিব এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘সরকারের এই সিদ্ধান্তে আমরা হতাশ ও ক্ষুব্ধ।’ যে যুক্তিতে এই সিদ্ধান্ত, তা যৌক্তিক বলে মনে করেন না বিএনপির এই নেতা।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ভাই শামীম এস্কান্দারের করা আবেদনটি আজ রোববার নাকচ করে দিয়েছে সরকার। ফলে চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে পারছেন না খালেদা জিয়া।

রবিবার বিকেলে এই সিদ্ধান্ত জানানোর পর, রাত আটটার দিকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখে এসে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকাসংলগ্ন ৩০০ ফুট সড়কের মাথায় সংবাদ সম্মেলন করেন মির্জা ফখরুল।

মির্জা বলেন, খালেদা জিয়া স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে পারবেন। ফুসফুস থেকে তরল বের হওয়ায় একটি নল মুখ দিয়ে ভেতরে নেওয়া হয়েছে। সেখানে দায়িত্বরত একজন চিকিৎসক জানিয়েছেন, করোনা–পরবর্তী জটিলতায় তাঁর ফুসফুস থেকে তরল বের করা হচ্ছে।

খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসা দেওয়ার ক্ষেত্রে সরকার অনুমতি না দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন বিএনপির মহাসচিব। তিনি বলেন, মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়া হয়েছে। এর উদ্দেশ্য হলো রাজনীতি থেকে খালেদা জিয়াকে দূরে সরিয়ে রাখা। তিনি বলেন, যখন নির্বাহী আদেশে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হয়, তখন করোনা পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছিল। এ অবস্থায় চিকিৎসার সুযোগ ছিল না। খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে সরকার খুব বেশি উপকার করেনি।

ফখরুল বলেন, চিকিৎসকেরা বলেছেন খালেদা জিয়ার আরও ভালো চিকিৎসা দরকার। তিনি এখনো ঝুঁকির মধ্যে আছেন। এই চিকিৎসা যথেষ্ট নয়। তিনি বলেন, ওয়ান–ইলেভেনের ধারাবাহিকতায় সরকার খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে চায়, এ জন্যই এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রতিহিংসামূলক রাজনীতি চরিতার্থ করার জন্যই এ সিদ্ধান্ত।

মহাসচিব আরো বলেন, আইনের মধ্যেই যথেষ্ট পরিমাণ দণ্ড মওকুফের সুযোগ রয়েছে। খালেদা জিয়ার জন্য তাদের মানবতা কাজ করেনি, শিষ্টাচার কাজ করেনি। রাজনীতির শিকার হয়েছেন তিনি। রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করবেন কি না, এমন প্রশ্নে মির্জা ফখরুল বলেন, দল কোনো আবেদন করেনি। এটা তাঁর পরিবার সিদ্ধান্ত নেবে।

সূত্রঃ পিএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x