শিরোনাম:
নওগাঁ জেলার আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জমি গ্রহনের অভিযোগ এর প্রতিবাদ সভা নওগাঁর রাণীনগরে ট্রাকের ধাক্কায় মটরসাইকেল চালক নিহত; আহত একজন রূপগঞ্জে মসজিদের বারান্দা থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার রংপুরের হারাগাছে শামীম গুল ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ড জামালপুরে নির্বাচনকে পেছাতে চালাকী করে মামলা- প্রতিবাদে মানববন্ধন রূপগঞ্জে কর্মহীন গরিব অসহায় বিধবা দুঃস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন ঢাকা মহানগর টিম এর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত মরহুম অধ্যক্ষ এম এম নজরুল স্যারের ২৯তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী হাঁস খেলা অনুষ্ঠিত স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন সভাপতি রবিউল, সম্পাদক জাহিদ, সাংগঠনিক রাজু

নারায়ণগঞ্জ শিক্ষাঙ্গনে প্রাণের ছোঁয়া

অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

রনি আহম্মেদ,নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ নিজেদের ভূবনের ফিরেছে শিক্ষার্থীরা। করোনা মহামারির কারনে দীর্ঘ ১৮ মাস বন্ধ ছিল দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। অবশেষে গতকাল ১২ সেপ্টেম্বর রবিবার সরকার দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশ দিলে রূপগঞ্জ উপজেলার শিক্ষাঙ্গনে প্রান ফিরে পেয়েছে। সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক স্বাস্থ্যবিধি মেনে রূপগঞ্জ উপজেলার কিন্ডার গার্টেন, প্রাইমারী, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও মাদ্রাসাসহ প্রায় ৩৬০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলেছে গতকাল ১২ সেপ্টেম্বর রোববার। দীর্ঘ ১৮ মাসের অপেক্ষার পালা শেষে প্রানহীন শিক্ষাঙ্গনে আবার প্রানের ছোয়া লেগেছে। শিক্ষার্থীরা তাদের প্রানের স্কুলে এসে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে। তবে প্রথমদিনে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে।


শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ২/১ দিন আগেই প্রানের সঞ্চার হয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলোতে। শ্রেনীকক্ষের বেঞ্চগুলো পরিস্কার হয়েছে উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে। এতে পরিচ্ছন্নতা কর্মীর সাথে ছাত্র ছাত্রীদেরও অংশ নিতে দেখা গেছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় শিক্ষার্থীদের মাঝে যেমন আনন্দ বইছে তেমনি দুঃশ্চিন্তায় রয়েছে অভিভাবকরা। কারন গত দেড় বছরে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

অনেক শিক্ষার্থীরা তাদের পড়াশোনা থেকে মনযোগ হারিয়ে ফেলেছে। শিক্ষার্থীদের মাঝে লেখাপড়ার গতি ফিরে আসবে কিনা তা নিয়ে দুশ্চিন্তা কাটছেনা অভিভাবকদের। তারপরও আশায় বুক বাধছে, সন্তানদের শিক্ষার আলো দিয়ে মানুষ করা হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সাথে সাথে ছেলে মেয়েরা তাদের পড়াশোনায় মন দেবে। অভিভাবকরা তাদের বাড়তি সময়টুকু শিক্ষার্থীদের পেছনে ব্যয় করলে হয়তো ক্ষতি কাটিয়ে উঠা সম্ভব বলে মনে করছেন অনেকেই।


রূপগঞ্জ উপজেলার প্রতিভা কিন্ডার গার্টেনে ২ মেয়েকে ভর্তি করিয়েছেন রুস্তম আলী। বড় মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনী ও ছোট মেয়ে তৃতীয় শ্রেনীতে পড়ছে। পড়াশোনায় বেশ ভাল। করোনা মহামারিতে গত বছরের মার্চে হঠাৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়াতে মেয়েদের লেখাপড়া নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় ছিলেন রুস্তম আলী। জানান, আমার মেয়েরা ভাল ছাত্রী ছিল। লেখাপড়ায় মনযোগী ছিল। স্কুল বন্ধ হওয়ায় বাড়িতে পড়তে বসে না। অনেক মুখস্ত পড়া ভূলে গেছে। তবে স্কুল খোলায় তিনিও বেশ আনন্দিত।


বাবা বাবুল মিয়ার সাথে স্কুলে আসে অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র রোমান। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে জানতে চাইলে রোমান জানায়, এই স্কুলে সে অষ্টম শ্রেনীতে পড়ে। অষ্টম শ্রেনীতে ভর্তি হওয়ার দুই মাস পরেই দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো আমার স্কুল বন্ধ হয়ে যায়। আজ দেড় বছর পর বন্ধুদের সাথে দেখা হবে। এত আনন্দ সে ধরে রাখতে পারছেনা। স্যারদের সাথে সরাসরি কথা হবে এ নিয়ে সে খুব উত্তেজনা বোধ করছে।


গোলাকান্দাইল মুজিবুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী সানজিদা আক্তার। স্কুল খোলার খবরে সে খুশিতে আত্নহারা। সে বলল, অনাকাঙ্খিতভাবে স্কুল বন্ধ হওয়ায় আমাদের পড়াশোর ক্ষতি হলেও এখন স্কুল খুলেছে তাই আমাদের উচিৎ লেখাপড়ায় মনযোগী হওয়া। সানজিদা বলে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যেন আর বন্ধ না হয় সেজন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে।


ভূলতা স্কুল এন্ড কলেজে পড়ে সেলিম মিয়ার দুই সন্তান। একজন ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ও অপরজন ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার খবরে দুই সন্তানকে স্কুলে পাঠাতে আগে থেকেই মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন সেলিম মিয়া। তিনি প্রতিবেদককে বলেন, দেড় বছর ধরে ঘরে থাকতে থাকতে ছেলে মেয়েরা বিরক্ত। তাদের মানসিক বিকাশও বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। আজ স্কুলে আসতে পেরে খুব আনন্দিত তারা। অবশ্য স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে কঠোরতা চান এই অভিভাবক। তিনি বলেন, স্কুলে যেন স্বাস্থ্যবিধি ঠিকমতো মানা হয়। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ক্লাস নেওয়ার দাবী তুলেন তিনি।


প্রতিভা কিন্ডারগার্টেনের প্রধান শিক্ষিকা শামিমা আক্তার ঝুনু জানান, সরকারের ১৯ দফা মেনেই আমরা স্কুল খুলেছি। স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করেছি। গত দেড় বছরে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, অপেক্ষার পালা শেষ হয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ায় সরকারকে ধন্যবাদ।


উপজেলা কিন্ডারগার্টেন শিক্ষা অফিসার জাহেদা আক্তার বলেন, সরকারী নির্দেশ মোতাবেক ১২ সেপ্টেম্বে হতে সারা দেশের মতো রূপগঞ্জে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয়েছে। তবে সরকারের ১৯ দফা নির্দেশনা মানতে হবে। সশরীরে ক্লাস সীমিত হবে। ইতিমধ্যে শিক্ষকদের শতভাগ টিকার আওতায় আনা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলে এবং সকল শিক্ষার্থীদের টিকা নিশ্চিত হলে পুরুদমে ক্লাস হবে বলে জানান উপজেলা শিক্ষা অফিসার।

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x