ঠাকুরগাঁওয়ে গরীবের ডাক্তার নামে পরিচিত তরুণ চিকিৎসক নাঈম হাসান

মোঃ দুলাল হোসেন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা ৭ নং চিলারং ইউনিয়নে ভেলাজান বাজারে গরীবের ডাক্তার নামে ব্যাপক পরিচিতি অর্জন করেছে ডা:নাঈম হাসান।

করোনা ভাইরাসের কারণে সারা দেশ যখন বিপর্যস্ত হুরহুর করে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা সেখানে ঠাকুরগাওঁ সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের ভেলাজান গ্রামেও এর প্রভাব কিন্তু কম নয়। তাই করোনা ভাইরাস সহ সাধারণ রোগে আক্রান্ত মানুষের দোরগোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে বিরামহীন ভাবে কাজ করছে ডাঃ মোঃ নাঈম হাসান (ডিএমএফ) ঢাকা।

এই করোনা কালিন সময়ে মানুষের পাশে থেকে সাধারন সব রোগের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন ডিপ্লোমা পাশ করা এই তরুন চিকিৎসক। ছোট কাল থেকেই মানুষের পাশে থেকে সেবা করার প্রবল ইচ্ছা ছিল তার সেই থেকে বগুড়ার এক প্রাইভেট মেডিকেল হতে ডিপ্লোমা পাশ করেন তিনি। যেখানে গ্রামে থেকে সাধারন মানুষের সেবা করতে চান না অনেক ডাক্তার সবাই যখন শহর মুখী সেখানে ডাঃ মোঃ নাঈম হাসান এর মত একজন ডিপ্লোমা চিকিৎসক গ্রামে থেকেই সাধারন মানুষের সেবা করার লক্ষে ভেলাজান বাজারেই চেম্বার দিয়ে রাত দিন করছেন রোগীদের সেবা।

সকাল ৯টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত রোগী দেখেন তিনি শুধু তাই নয় এই মহামারি তে রোগীদের বাসায় গিয়েও দিয়েছেন চিকিৎসা সেবা, এছাড়াও মোবাইল ফোনে এর মাধ্যমে দিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন সেবা প্রয়োজনে ছুটে চলেছেন এ গ্রাম থেকে পাশের গ্রামে। সেই সাথে অল্প কিছু দিনে মানুষের কাছ থেকে কুরিয়েছেন সুনাম।

আলম হোসেন নামে এক ভুক্তভোগী জানান, আমি গরীব মানুষ করোনার এই সময়ে গোটা দেশ যখন বিপযস্থ হটাৎ আমার ছোট ছেলে জ্বর সর্দি কাশি তে আক্রান্ত হলে রাত সাড়ে দশটার সময় আমি ডাক্তার নাঈম হাসান এর সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে পরক্ষণেই তিনি আমার বাসায় এসে উপস্থিত হন এবং তার চিকিৎসা সেবা শুরু করে তবে আমি গরিব বলে আমার কাছে কোন ভিজিট ছাড়াই শুধু ঔষধের দাম নিয়ে দোয়া করবেন বলে চলে যান

নার্গিস আক্তার নামে আরেক ভুক্তভোগী জানান আমি গরিব মানুষ অতি কষ্টে জীবন যাপন করি করোনার এই সময়ে আমি যখন জ্বর, শরীর ব্যথা ও কোমর ব্যথার মতো সমস্যায় ভুগছিলাম হঠাৎ আমি একদিন ডাক্তার নাঈম হাসান এর চেম্বার এ গেলে তিনি আমাকে কোন প্রকার ভিজিট ছাড়াই কিছু ভালো ওষুধ লিখে দেন এবং সীমিত দামে আমাকে ওষুধ গুলো কিনে আল্লাহ হুকুমে এখন অনেকটাই সুস্থতাবোধ করছি আল্লাহ আমাদের মত গরীব লোকদের জন্য উনাকে অনেক দিন বাঁচিয়ে রাখুক।

তবে এ বিষয়ে ডাক্তার নাঈম হাসান জানান ছোট থেকেই আমার খুব ইচ্ছা ছিল দেশ এবং দেশের মানুষের জন্য কাজ করার। আলহামদুলিল্লাহ চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে নিজেকে সবার জন্য উন্মুক্ত করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করি সেই সাথে গরীব ও অসহায় রোগীদের ফ্রিতে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। আমি চেষ্টা করি বাকি জীবনেও যেন এভাবে গরীব ও অসহায় মানুষদের ফ্রিতে চিকিৎসাসেবা দিতে পারি সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন।

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x