ফেনীতে কাভার্ডভ্যান থামিয়ে গার্মেন্টস পণ্য চুরির অভিযোগে আটক-০৪

অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৯ জুন, ২০২১

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনী শহরতলীর দেওয়ানগঞ্জ এলাকায় রপ্তানীযোগ্য গার্মেন্টস সামগ্রী ভর্তি গাড়ি থেকে পন্য চুরির অভিযোগে আনোয়ার হোসেন আজাদসহ ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। সোমবার দিবাগত গভীর রাতে পণ্যবাহী গাড়ি থেকে গার্মেন্টস পণ্য নামিয়ে গুদামজাত করার সময় তাদেরকে আটক করা হয়েছে। এসময় ১ কোটি ৭ লাখ ৫২ হাজার টাকা মূল্যের গার্মেন্টস পণ্য সামগ্রী উদ্ধার ও একটি কভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্রো ট ২০-৬৭৮২) জব্দ করা হয়েছে।

আটককৃতরা হচ্ছেন, ফেনী পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও টমটম শ্রমিক নেতা আনোয়ার হোসেন আজাদ (৪২)। তিনি ফেনীর উত্তর ছাড়িপুর এলাকার হামিদ ভূঞা বাড়ির তাজুল ইসলামের ছেলে। একই এলাকার মুক্তার বাড়ির শাহজাহানের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম স্বপন (৪০), কাভার্ডভ্যানাটির চালক কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকার মধ্যপাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে মো. হানিফ (৩২) ও হেলপার চট্টগ্রামের আনোয়ারা থানার বারো কেরানী গ্রামের এমএ কাদেরের ছেলে মো. মহসিন (২০)।

র‌্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুর রহমান জানান, রবিবার ঢাকার গাজীপুরের কালিকাপুর থেকে লিবার্টি গ্রুপের গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানির জন্য চট্টগ্রাম বন্দরের উদ্দেশ্যে কভার্ডভ্যানটি রওনা হয়। এর চট্টগ্রাম বন্দরে যাবার আগে ফেনীর দেওয়ানগঞ্জে সোমবার রাত ১১টার দিকে ফেনী পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো. আনোয়ার হোসেন আজাদ গুদামে গাড়িটি নিয়ে আসে। সেখানে কভার্ডভ্যান থেকে সব মালামাল সরিয়ে ফেলে সেটি রাস্তার পাশে ফেলে রাখে তারা। পরে স্থানীয় লোকজন কর্ভাডভ্যানটি হতে মালামাল নামিয়ে ফেলার বিষয়টি দেখতে পেয়ে র‌্যাব কে খবর দেয়।

পরবর্তীতে রাত ১২টার দিকে ওই গুদামে অভিযান চালিয়ে হাতে-নাতে গাড়ির ফেনী পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো. আনোয়ার হোসেন আজাদ চালক ও হেলপারসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে চোর চক্রের একাধিক সদস্য পালিয়ে যায়। পণ্যগুলো চট্রগ্রাম বন্দর হয়ে জার্মান যাওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু গার্মেন্টস পণ্য পরিবহণের চালক ও স্থানীয় নেতা আজাদসহ পূর্বে থেকে চুক্তিনামা অনুযায়ী পণ্যগুলো ফেনী পৌছানোর পর কার্টন থেকে মালামাল সরিয়ে ফেলে। সে অনুযায়ী প্রতি কার্টনে ৩২ পিস মালামাল থাকে কিন্তু সেখান থেকে প্রতারকরা ৮ পিস সরিয়ে রাখে চক্রটি।

মো. মাহফুজুর রহমান জানান, গাড়িতে মোট ৩৩৬টি কার্টুনে গার্মেন্টস পণ্য ছিল। প্রতিটিতে ৩২ পিস করে সোয়েটার ছিল। প্রতি কার্টুন থেকে ৮ পিস করে রেখে দিচ্ছিল তারা।

তিনি আরও জানান, এ চক্রটি বেশ কিছু মাস ধরে গার্মেন্টস সামগ্রী চুরির কাজ করে আসছিল। এতে বিভিন্ন কোম্পানীর সাথে জার্মান প্রতিষ্ঠানের চুক্তি বাতিলের পাশাপাশি দেশের সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে বলে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x