শিরোনাম:
করোনা ভাইরাজ উন্নত চিকিৎসা জন্য সিভিল সার্জনের কাছে করোনা চিকিৎসা সামগ্রী হস্তান্তর বগুড়ায় ফেন্সিডিল বিক্রির অভিযোগে পুলিশের এএসপিসহ তিন পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার। বখাটের ধর্ষণের শিকারে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী সন্তান প্রসব । ২১ এপ্রিল করোনায় ৯৫ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৪২৮০ বোরো ধান কর্তনের জন্য নীলফামারী ছাড়ছেন কৃষি শ্রমিকরা নীলফামারীতে ইটভাটা গিলে খাচ্ছে আবাদি জমি,হুমকির মুখে পরিবেশ আনোয়ারায় চাঞ্চল্যকর রুপন আচার্য্য হত্যার এজহারভুক্ত আসামী আটক গাজীপুরে মৌমাছির কামড়ে নিহত যুবক গাজীপুরে মাথাবিহীন যুবকের লাশ উদ্ধার BYBDC সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকরা বিনামূল্যে ডায়রিয়া রুগীদের সেবা দিচ্ছে

গাইবান্ধার পল্লীতে কুমারী শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১
গাইবান্ধার পল্লীতে কুমারী শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

আবু নোমান, গাইবান্ধা:

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে কুমারী শিশুকে (৭) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। চল্লিশ লম্পট আ. হালিম মণ্ডল পলাতক।

সোমবার (১ মার্চ) সকালে ঘটনাটি ঘটে উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের চক পাখেড়া গ্রামে। একই গ্রামের মৃত আজিজ মন্ডলের ছেলে আ. হালিমের (৪০) বিরুদ্ধে শিশুটিকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সে শিশুটিকে পাশের জনশূন্য নূর মোহাম্মদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এসময় শিশুটির চিৎকারে প্রতিবেশিরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে লম্পট পালিয়ে যায়। প্রতিবেশিরা শিশুটিকে উদ্ধার করে ইউপি চেয়ারম্যানকে খবর দেয়।

শিশুটির মা জানান, ঘটনার সময় আমি বাড়ির উত্তর পাশে পাটখড়ি ও গোবর দিয়ে জ্বালানি তৈরির কাজ করছিলাম। প্রতিবেশিদের হৈ চৈ ও মেয়ের কান্না শুনে আমি ঘটনাস্থলে ছুটে যাই।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন হরিরামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী সাজু। তিনি জানান, আমি ধর্ষণ চেষ্টার খবর শুনে গ্রাম্য পুলিশ সন্তোষকে ঘটনাস্থলে পাঠাই। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের জন্য গ্রাম্যপুলিশসহ গোবিন্দগঞ্জ থানায় পাঠানো হয়েছে।

গাইবান্ধার পল্লীতে কুমারী শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

আবু নোমান,

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে কুমারী শিশুকে (৭) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। চল্লিশ লম্পট আ. হালিম মণ্ডল পলাতক।

সোমবার (১ মার্চ) সকালে ঘটনাটি ঘটে উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের চক পাখেড়া গ্রামে। একই গ্রামের মৃত আজিজ মন্ডলের ছেলে আ. হালিমের (৪০) বিরুদ্ধে শিশুটিকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সে শিশুটিকে পাশের জনশূন্য নূর মোহাম্মদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এসময় শিশুটির চিৎকারে প্রতিবেশিরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে লম্পট পালিয়ে যায়। প্রতিবেশিরা শিশুটিকে উদ্ধার করে ইউপি চেয়ারম্যানকে খবর দেয়।

শিশুটির মা জানান, ঘটনার সময় আমি বাড়ির উত্তর পাশে পাটখড়ি ও গোবর দিয়ে জ্বালানি তৈরির কাজ করছিলাম। প্রতিবেশিদের হৈ চৈ ও মেয়ের কান্না শুনে আমি ঘটনাস্থলে ছুটে যাই।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন হরিরামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী সাজু। তিনি জানান, আমি ধর্ষণ চেষ্টার খবর শুনে গ্রাম্য পুলিশ সন্তোষকে ঘটনাস্থলে পাঠাই। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের জন্য গ্রাম্যপুলিশসহ গোবিন্দগঞ্জ থানায় পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25