গাংনীতে বিধবা নারীকে মারধর ও দোকান ভাংচুরের অভিযোগ।

হাসানুজ্জামান- মেহেরপুরঃ
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ মে, ২০২১
গাংনীতে বিধবা নারীকে

মেহেরপুরের গাংনীতে বিধবা নারীকে মারধর ও তার দোকান ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। গত সোমবার উপজেলার কাজিপুর গ্রামের মন্ডল পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। মারধর ও দোকান ভাংচুরের ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে ঐ বিধবা নারী। আহত নারী কাজিপুর মন্ডলপাড়ার মহাসিন আলীর মেয়ে বিধবা ফেরদৌসি খাতুন।

তিনি জানান, স্বামী মারা যাওয়ার পর সন্তানদের নিয়ে পৈত্তিক সূত্রে পাওয়া ২ শতক উপর বসত ঘরের পাশে একটি কাঠের দোকান বসানো হয়। কিন্তু কাবের আলীর ছেলে রাসেল (চাচাতো ভাই) জোর পূর্বক দোকান ঘর ভেঙ্গে পানিতে ফেলে দেয়।

এসময় বাধা দিতে গেলে রাসেল সহ তার সহযোগিরা মারধর করে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য খবির উদ্দীন জানান,বিধবা ফেরদৌসি খাতুন সন্তানদের নিয়ে ২ শতক জমির উপর কোন রকম বসবাস করে আসছে। কিন্তু রাসেল কারোর কোন কথা না শুনে দোকান ঘর ভেঙ্গে পানিতে ফেলে দিয়েছে। বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করলেও রাসেলের অনিহার কারনে সম্ভব হয়নি।

গাংনী থানার এস আই গোলাম মোস্তফা জানান,দোকান ভাংচুর মারধরের একটি লিখিত অভিযোগে করেছে ফেরদৌসি খাতুন। অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছি। আগামি সোমবার কিংবা মঙ্গলবার পর্যন্ত উভয় পক্ষকে থানায় ডেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে স্থানীয় লোকজন ভাংচুর ও মারধর সহ নানা বিষয়ে রাসেলের বিষয়ে বিরুপ মন্তব্য করেছেন।

এ বিষয়ে রাসেল জানান,আমিও থানায় অভিযোগ করেছি। যা হবে থানায় হবে।

গাংনী থানার এস আই জহির জানান, পৈত্তিক সম্পত্তি বিরোধ নিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে রাসেল সহ তার লোকজন সহনশীল না হওয়ার কারনে সমাধান করা সম্ভব হয়নি। তবে এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য সহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে সমাধান করা হবে।

বিধবা ফেরদৌসি খাতুন জানান,তিনি আবারো মারধরের শিকার হতে পারে এমন আশংকা রয়েছে জানিয়ে রাসেল সহ তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানিয়েছেন তিনি। এদিকে বিধবা নারীকে মারধরের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন এলাকাবাসি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x