হিন্দু মহাজোটের ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে অনলাইন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ

অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ২ অক্টোবর, ২০২১

‘ইতিহাস, সংগ্রাম, অধিকার ও ঐতিহ্যের ১৫ বছর’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে গেল সেপ্টেম্বর মাসের ১৭ তারিখ শুক্রবার ঢাকা সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলা গুলোতে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের ১৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। এসময় হিন্দু মহাজোটের অঙ্গ সংগঠন গুলোও দেশের বিভিন্ন জায়গায় তাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালন করেন।

সংগঠনের ১৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং আগত গীতাজয়ন্তী উপলক্ষে একটি ভিন্ন কর্মসূচি পালন করে হিন্দু মহাজোটের অঙ্গ সংগঠন যুব ও ছাত্র মহাজোটের রংপুর জেলা শাখার নেতাকর্মীরা। গীতাজয়ন্তী’র চেতনা এবং সংগঠনের আদর্শকে ধারণ করে রংপুর জেলা কমিটির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় চণ্ডীপাঠ/ গীতাপাঠ/ বেদশ্লোক পাঠ অনলাইন প্রতিযোগিতা- ২০২১ শিরোনামে একটি অনলাইন প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতার সার্বিক তত্বাবধান থেকে শুরু করে আর্থিক সাহায্য এবং মিডিয়া পার্টনার হিসাবে ছিলো দেশের জনপ্রিয় অন্যতম অনলাইন পত্রিকা দৈনিক কলম কথা (dailykolomkotha.com)।

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের ১৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ১৭ই সেপ্টেম্বর দিনটিতে এই প্রতিযোগিতার সমাপ্ত এবং ২৪শে সেপ্টেম্বর এক অনলাইন কনফারেন্সের মাধ্যমে এর ফলাফল প্রকাশ করা হয়। ফলাফলে ১ম স্থান অধিকার করে রংপুর জেলার অন্তর্গত গঙ্গাচড়া থানার পুজা সরকার এবং ২য় স্থান অধিকার করে একই জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার সৌভিক গাঙ্গুঁলী।

গেল আগষ্ট মাসের ২৫ তারিখ দৈনিক কলম কথায় এক প্রেস বিজ্ঞাপ্তিতে এবং নিজেদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ”চণ্ডীপাঠ/ গীতাপাঠ/ বেদশ্লোক পাঠ অনলাইন প্রতিযোগিতা-২০২১” শিরোনামে একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে রংপুর জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দরা।

আজ শুক্রবার ১ই অক্টোবর পুরষ্কার হিসাবে ক্রেস্ট ও একটি শ্রীমদভগবদ্ গীতা সহ দৈনিক কলম কথা এবং হিন্দু মহাজোটের শুভেচ্ছা পত্র বিজয়ীদের হাতে তুলে দেন রংপুর জেলা কমিটির যুব মহাজোটের আহ্বায়ক শ্রীমান রবীদ্রনাথ সরকার এবং ছাত্র মহাজোটের আহ্বায়ক শ্রীমান পলাশ রায় সহ আরও অনেকে।

উক্ত অনলাইন কনফারেন্সে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমান পশাল কান্তি দে, মুখপাত্র ও নির্বাহী মহাসচিব বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু মহাজোটের অঙ্গসংগঠন যুব মহাজোটের কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি শ্রীমান প্রদীপ কান্তি দে, সাধারণ সম্পাদক রাজেশ নাহা, ছাত্র মহাজোট কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি সজীব বৈদ্য, রংপুর জেলা কমিটির আহ্বায়ক বৃন্দ প্রমূখ।

এসময় উক্ত কনফারেন্সে অতিথিরা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে উক্ত প্রতিযোগীতার প্রতিযোগীদের এবং বিজয়ীদের উদ্দেশ্য বক্তব্য রাখেন। সাংগঠনিক কর্যক্রম বিষয়ে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের মুখপাত্র ও নির্বাহী মহাসচিব শ্রীমান পলাশ কান্তি দে বলেন, এটি নিঃসন্দেহে একটি ভালো উদ্দ্যেগ, এর আগে কোন জেলার নেতৃবৃন্দরা এরকম প্রতিযোগিতার আয়োজন করে নি। আমরা কেন্দ্রিয় কমিটির পক্ষ থেকে তাদের সাধুবাদ জানাচ্ছি।আমি অভিভূত হয়েছি রংপুর জেলা শাখার এমন কর্মকাণ্ড দেখে। তাদের প্রতি আমাদের আস্থার জায়গাটা প্রসারিত হয়েছে। আমরা চাই ভবিষ্যতেও রংপুর জেলা কমিটি কাজ করে যাক রংপুর তথা সারা বাংলাদেশের হিন্দুদের জন্য।

এ সময় উপস্থিত হিন্দু মহাজোটের অঙ্গসংগঠন যুব মহাজোটের কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি শ্রীমান প্রদীপ কান্তি দে বলেন, সাংগঠনিক কার্যক্রমের দিক থেকে রংপুর জেলা শাখার সদস্যরা খুবি মনযোগী এবং নতুন একটি কমিটি। যাদের কার্যক্রম দেখে মনে হচ্ছে রংপুর শাখার সদস্যরাই একদিন হয়ে উঠবে বাংলাদেশের হিন্দুদের সাম্প্রদায়িক হামলা সহ বিভিন্ন সিন্ডিকেটে হিন্দুদের প্রতি নির্যাতন বন্ধের হাতিয়ার। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেই যাচ্ছি হিন্দুদের রক্ষার্থে এবং ইতিমধ্যেই আমরা ব্যাপক সফলতার ভূমিকা রেখেছি আমরা আশাবাদী রংপুর শাখা আমাদের কাজের সারথী হয়ে এভাবেই আমাদেরকে সাহায্য করে যাবে।

এই বিভাগের আরও খবর
কপিরাইট ©২০০০-২০২০, WsbNews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Desing & Developed BY ServerNeed.Com
themesbazarwsbnews25
x